No icon

রাজনৈতিক নেতাদের বিশেষনের খুজে

সাম্প্রতিক বিশ্বে মুসলমান সংখ্যাগরিষ্ঠ গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র গুলোর মধ্যে আলোচিত রাজনীতিক হলেন, তুরস্কের এরদোয়ান, মালয়েশিয়ার মাহাতির মুহম্মদ ও পাকিস্তানের ইমরান খান। ইমরান খান ক্ষমতায় এসেছেন বেশি দিন হয়নি। তাঁর সফলতা ও ব্যর্থতা মূল্যায়নের সময় আসেনি এখনো। তবে ইতোমধ্যেই তিনি বেশ আলোচিত। জাতিসংঘে সাধারণ অধিবেশনে এক ভাষণেই তিনি বাজিতাম করেছেন। পক্ষে-বিপক্ষে সমালোচনা থাকতে পারে। তবে এ ভাষণ ইমরান খান বিরোধীরাও আমলে নিয়েছেন। নানা সমালোচনাও করেছেন বিরোধীরা। তাই বলা চলে ভাষন সবার নজর কাড়তে সক্ষম হয়েছে।

২০১৫ সালের জুলাই মাসে এরদোয়ান বিরোধী সামরিক অভ্যূত্থান হয়েছিল। কিন্তু কয়েক ঘন্টার মধ্যে গণ-অভ্যূত্থানে ভেসে যায় সামিরক অভ্যূত্থান। সামরিক অভ্যূত্থানে ক্ষমতাচ্যুত ঘোষণা করা হয়েছিল এরদোয়ানকে। কয়েক ঘন্টার মধ্যে গণ-অভ্যুত্থান ঘটিয়ে ক্ষমতা পুনর্বহালের নজির সাম্প্রতিক বিশ্বে কোথায়ও নেই। এরদোয়ানের নেতৃত্বে এটাও সম্ভব হয়েছে। এতে বোঝাই যায় তাঁর জনপ্রিয়তার ব্যারোমিটারের পারদ তখন কত উচ্চতায় ছিল! নতুবা এমনটা হওয়ার কথা নয়।

মাহাথির মুহাম্মদ। ২০ বছর টানা মালয়েশিয়া শাসন করেছেন। তাঁর হাতেই গড়ে উঠেছে আজকের আধুনিক মালয়েশিয়া। অবসরের পর আবারো নতুন রাজনৈতিক দল গঠনের মাধ্যমে ক্ষমতায় ফিরেছেন। বয়স শতকের ঘরের কাছাকাছি।

বলতে পারেন এই আলোচনার অবতারনা কেন করলাম? অনেক দিন থেকেই আমি তাদের নিয়ে ভাবছি এবং একটা জিনিস খুজতেছি। তাদের মোসাহেব, চামচা-চাটুকারা কি বিশেষণে তাদের ভুষিত করেছেন! খুজলাম তন্ন তন্ন করে। কিন্তু তাদের নামের আগে বিশেষণ খুজে পাচ্ছি না। কেউ তাদের নামের সাথে বিশেষণ পেলে আমাকে জানাবেন প্লিজ। দেখতে চাই তাদেরকে কি বিশেষণ দেয়া হয়েছে চামচা মোসাহেবদের পক্ষ থেকে। তাদের চামচা, চাটুকার, মোসাহেব রয়েছেন কি না সেটাও তো জানি না। থাকলে থাকতেও পারে। আবার নাও থাকতে পারে। তাদের নেতৃত্বের দৃঢ়তা দেখলে মনে হয় প্রত্যেকে নিজেরা পৃথক অবস্থান তৈরি করে নিয়েছেন যোগ্যতা এবং দক্ষতা দিয়ে।

তারপরও নামের আগে-পিছে বিশেষণহীন নেতা তারা! তাই বলে কি তাদের নেতৃত্ব অচল হয়ে গেছে? তারা কি ইতিহাসে জায়গা পাবেন না, নেতা হিসাবে ভবিষ্যতে! ইতিহাস কি চামচা, মোসাহেব-চাটুকারদের দেয়া বিশেষণ মূল্যায়ন করবে? নাকি নেতৃত্বের কর্ম ও যোগ্যতা এবং দক্ষতাকে বিবেচনা করবে!

পাশাপাশি আরেকটা জিনিস খুজতেছিলাম। আমাদের দেশে রাজনৈতিক নেতাদের বিশেষণ। শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের নামের সাথে কোন বিশেষণ খুজে পেলাম না শুধু! তাঁর নামের সাথে বীর উত্তম শব্দটি পাওয়া যায়। এটা কিন্তু রাষ্ট্রীয় উপাধি। রাষ্ট্র এই উপাধি দিয়েছে মুক্তিযুদ্ধে বীরত্বের জন্য। এর বাইরে আর কোন বিশেষণ নেই। তাই বলে কি তিনি অসফল? তাঁর জীবন এবং কর্মের ওপর নির্ভর করেই তো এখনো বিএনপি’র জনপ্রিয়তা তুঙ্গে বলা চলে।

জিয়াউর রহমানের বাইরে বিশেষণহীন নেতা নেই বাংলাদেশে। রাজনীতি যারাই করেন, তাদের একটি বা একাধিক বিশেষণ রয়েছে। কেউ হয়ত রানীতি করেন। কিন্তু কখনো রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় ছিলেন না কখনো। এজন্য তাঁকে ভবিষ্যৎ বিশেষণে ভূষিত করা হয়! আবার যার নামের আগে কোন বিশেষণ নেই, চামরা বক্তব্যের সময় তাঁকে বিশেষ বিশেষণে আখ্যায়িত করা হয়। যেমন, অনেকের ক্ষেত্রে বলা হয়, দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম রাজনৈতিক নেতা বা হেন তেন! এমন কি ১৪ বছর আহ্বায়ক কমিটির নেতা। পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের মত দক্ষতা নেই। তাঁকেও বিশেষণ দিতে গিয়ে বলা হয়, ‘সফল’ আহ্বায়ক। অর্থাৎ বিশেষণের বাইরে কোন নেতা নেই বাংলাদেশে। বঙ্গবন্ধু, পল্লিবন্ধু, জননেতা, জননেত্রী, মাদার অব ডেমক্রেসি, মাদার অব হিউম্যানিটি, এমনকি জনক, জননী, অমুক এলাকার উন্নয়নের রুপকার, তুমক এলাকার হেন-তেন, আধুনিক তমুকের জনক ব্যবহার করা হয় কারো কারো ক্ষেত্রে। এরকম বিশেষণের শেষ নেই রাজনৈতিক নেতৃত্বের নামের আগে বা পরে।

ও আরেকটা বিষয়! ভোটের আগে পোষ্টারে বা লিফলেটে অনেক নেতার নামের সাথে লেখা হয়, জনদরদী গরীবের বন্ধু। অথচ, ওই নেতার সাথে সাধারণ মানুষ দেখা করারই সুযোগ নেই। গরীব তো অনেক দূরের ব্যাপার! যারা পোষ্টারে এমন বাণী লিখেণ, তাদের বাড়ির ফটকে চারজন দাড়োয়ান। ৫ জন মোসাহেব। বাড়ির ফটকে গেলে প্রথমেই দাড়োয়ানের ধমক শোনা লাগে। মোসাহেবকে খুশি করা গেলে দেখা করার সৌভাগ্য কারো কপালে হয়ত: জুটে। অথচ, তিনি হলেন, ভোটের আগে জন দরদী, গরীবের বন্ধু বিশেষনে আখ্যায়িত নেতা!

কাউকে যখন ভবিষ্যৎ বিশেষণে ভুষিত করা হয়, তখন একটা বিষয় চিন্তার মধ্যে আসে। ভবিষ্যতে এক মূহুর্ত পর কার ভাগ্যে কি ঘটবে, সেটা কি চামচা মোসাহেবরা নির্ধারণ করেন?! সারা জীবন জেনে আসলাম ভবিষ্যত জানেন একমাত্র আল্লাহ। আল্লাহ ছাড়া কেউ জানেন না এক মূহুর্ত পর কার ভাগ্যে কি ঘটতে যাচ্ছে। তারপরও ভাগ্য নির্ধারনের দায়িত্বটা চামচা-মোসাহেবরা পালন করেন! যাদের এমন বিশেষণ দেয়া হয়, তারাও শুনে পুলকিত হন!

 Oliullah Noman

 Oliullah Noman

Oliullah Noman
Comment As:

Comment (0)