No icon

পারলে গ্লোবাল রিসার্চের প্রশ্নগুলোর জবাব দিন: করোনা নিয়ে আমেরিকাকে ইরান

মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মরগ্যান ওরতোগ্যাস ইরানের সর্বোচ্চ নেতার ভাষণের জবাব দিয়ে যে বক্তব্য দিয়েছেন ‘গ্লোবাল রিসার্চ’র একটি প্রবন্ধের উদ্ধৃতি দিয়ে তা নাকচ করে দিয়েছে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

ইরানের সর্বোচ্চ নেতা সম্প্রতি করোনাভাইরাস মোকাবিলায় মার্কিন সাহায্যের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করে যে ভাষণ দিয়েছিলেন ওরতোগ্যাস তার প্রতিক্রিয়া জানিয়ে গতকাল (সোমবার) একটি টুইটার বার্তা প্রকাশ করেন।  ইরানের সর্বোচ্চ নেতা তার ভাষণে বলেছিলেন, করোনাভাইরাস সৃষ্টির জন্য যেখানে আমেরিকা অভিযুক্ত সেখানে তার কাছ থেকে ইরান সাহায্য নিতে পারে না। তাঁর ওই ভাষণকে মার্কিন মুখপাত্র ‘ষড়যন্ত্রের তত্ত্ব’ বলে অভিহিত করেন।

ওই বার্তার জবাবে পাল্টা টুইট করে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, করোনাভাইরাস সম্পর্কে বিশ্ববাসীর অভিযোগ যদি ‘ষড়যন্ত্রের তত্ত্ব’ হয় তাহলে আমেরিকা যেন গ্লোবাল রিসার্চে উত্থাপিত প্রশ্নগুলোর উত্তর দেয়।

ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী রোববার তার নববর্ষের ভাষণে বলেছিলেন, মার্কিন কর্মকর্তাদের বক্তব্য অত্যন্ত বিস্ময়কর। কারণ, প্রথমত, তাদের নিজেদের ওষুধ ও চিকিৎসা সামগ্রীর প্রচণ্ড অভাব রয়েছে এবং এই সংকটের কথা কোনো কোনো মার্কিন কর্মকর্তা প্রকাশ্যে ঘোষণা করেছেন। কাজেই আমেরিকার যদি এত বেশি চিকিৎসা সামগ্রী থেকে থাকে তাহলে তা যেন সে নিজের জনগণের চিকিৎসায় ব্যয় করে।

ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আরো বলেন, দ্বিতীয়ত, মার্কিনীরা নিজেরাই যখন এই ভাইরাস তৈরির জন্য অভিযুক্ত তখন কোনো সুস্থ বোধসম্পন্ন মানুষ তাদের কাছ থেকে সেই ভাইরাসের চিকিৎসায় সাহায্য গ্রহণ করতে পারে না।

গ্লোবাল রিসার্চ গত ২১ মার্চ ‘আমেরিকার কাছে ১০টি প্রশ্ন: করোনা কোথা থেকে এসেছে’ শিরোনামের একটি প্রবন্ধ প্রকাশ করে। ওই প্রবন্ধে করোনাভাইরাসের উৎপত্তি নিয়ে মার্কিন কর্মকর্তাদের প্রশ্ন করা হয়

Comment As:

Comment (0)