No icon

ইসরাইলি কারাগারে অনশনে থাকা ফিলিস্তিনি বন্দীর সমর্থনে গাজায় সমাবেশ

আমার দেশ ডেস্ক
শনিবার ফিলিস্তিনি অনশন পালনকারী বন্দী মাহের আল-আখরাসের সমর্থনে গাজা উপত্যকায় কয়েক ডজন ফিলিস্তিনি একটি বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করেছেন।

এর আগে ইসরাইলি মানবাদিকার সংগঠন বেত’সেলেম জানিয়েছিলো যে জুলাইয়ের শেষদিকে ইসরাইল দ্বারা গ্রেপ্তারে হওয়ার পর থেকে প্রায় ৮৩ দিন ধরে অনশন পালনকারী আল-আখরাস “মৃত্যুর মুখে” আছেন।

৪৯ বছর বয়সী মাহের আল-আখরাসকে নাবলাসের কাছ থেকে ইসরাইলি সুরক্ষা বাহিনী গ্রেপ্তার করে “প্রশাসনিক আটকে” রাখা হয় বলে জানা যায়। উল্লেখ্য যে এই নীতিমালা ব্যবহারের মাধ্যমে ফিলিস্তিনি সন্দেহভাজনদের বিনা অভিযোগে লম্বা সময় ধরে আটকে রাখে।

ছয়জন বাচ্চার বাবা মাহের এই নীতিটির প্রতিবাদে অনশন শুরু করেছিলেন বলে জানা যায়। তাছাড়া এর আগে ইসলামিক জিহাদ সশস্ত্র গোষ্ঠীর সাথে সম্পর্কের অভিযোগে ইসরাইল তাকে বেশ কয়েকবার গ্রেপ্তার করেছে।

স্থানীয় কয়েদী কমিটির সদস্য আবদেল-কাদের ইদ্রিসি সমাবেশে বলেন, ” ইসরাইলি দখলদার বাহিনী ফিলিস্তিনিদের ইচ্ছাকে উপেক্ষা করতে পারে না। এটা প্রমান করার জন্য আল-আখরাস তার ‘খালি পেট’ দিয়ে লড়ছেন।“

অংশগ্রহনকারীরা অনশনে থাকা বন্দীকে তাৎক্ষনিক মুক্তি দেওয়ার দাবিতে ব্যানার তোলেন।

ইদ্রিস বলেছিলেন যে আল-আখরাসের আটক এমন এক সময়ে এসেছে যখন আরব দেশগুলো ফিলিস্তিনি জনগণের বিরুদ্ধে তাদের অপরাধ ঢাকতে ইসরাইলি সরকারের সাথে সম্পর্ক স্থাপন করার জন্য ছুটে চলেছে।

আল-আখরাসকে সেপ্টেম্বরের শুরুর দিকে তেল আবিবের দক্ষিণে অবস্থিত কাপলান মেডিকেল সেন্টারে স্থানান্তর করা হয়েছিল বলে জানা যায়। ইতিমধ্যে তার আইনজীবীরা তার মুক্তির জন্য ইসরাইলের সুপ্রিম কোর্টে একাধিকবার আবেদন করলেও তাকে ছাড়ানো সম্ভব হয়নি।

ফিলিস্তিনিরা ও মানবাধিকার সংগঠনগুলি বলছে যে “প্রশাসনিক আটক” নামক এই প্রথা ব্রিটিশ ম্যান্ডেট আমল থেকে প্রচলিত এবং আটককৃত অভিযুক্তদের বিচার বা দোষী সাব্যস্ত না করে দীর্ঘকাল ধরে বন্দী রাখার পথকে সুগম করে দেয়।

জানা যায় যে প্রায় ৪,৪০০ ফিলিস্তিনি রাজনৈতিক বন্দি ইজরাইলি কারাগারে বন্দী রয়েছেন – যাদের মধ্যে আছেন ৩৯ জন মহিলা ও ১৫৫ শিশু। তাদের মধ্যে ৩৫০ জন প্রশাসনিক আটকে রয়েছে বলে জানা যায়।

Comment As:

Comment (0)