No icon

সুপ্রিম কোর্টের এমন কোনো জায়গা খুঁজে পাওয়া যাবে না, যেখানে দুর্নীতি নেই!

সুপ্রিম কোর্টের এফিডেভিট শাখার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দুর্নীতি ও ৩১ জনের বদলি নিয়ে কথা বলেছেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের আইনজীবী ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন। তিনি বলেন, সুপ্রিম কোর্টের দুর্নীতির কথা কী বলব। যেখানে প্রধান বিচারপতি বলেছেন, সিসি টিভি ক্যামেরা লাগানোর পরও সেই দুর্নীতি অনিয়ম রোধ করতে পারছেন না। ক্যামেরার বাইরে গিয়ে লেনদেন করা হয়। এটা কী কোনো দেশের সর্বোচ্চ আদালতের একটি শাখার চিত্র হতে পারে।

মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্টের ৩১ কর্মকর্তা-কর্মচারীকে বদলি করার পর কোর্ট চত্বরে তিনি একথা বলেন।

তিনি বলেন, কোর্টের এমন কোনো জায়গা খুঁজে পাওয়া যাবে না, যেখানে দুর্নীতি নেই। আপনারা জানেন, কিছুদিন আগে তিনজন বিচারপতি অনিয়মের সঙ্গে জড়িত থাকায় বিচারিককাজ থেকে তাদের বিরত রাখা হয়েছে। আবার যেখানে শুধু বিচারপতির ছেলে হওয়ার কারণে একজনকে পরীক্ষা ছাড়াই হাইকোর্টের আইনজীবী ঘোষণা করে গেজেট দেয়া হয়েছে। এসব কথা বলতে বলতে তিনি ক্ষোভে ফেটে পড়েন।

দুপুরে এফিডেভিট শাখার সব কর্মকর্তা-কর্মচারীকে বদলির ঘটনায় অ্যাটর্নি জেনারেলের নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, যখনই কোনো প্রতিষ্ঠানে দুর্নীতি ঢুকে যায় তখন সেই দুর্নীতি রোধের জন্য কতগুলো পদক্ষেপ নিতে হয়। তাই প্রধান বিচারপতি গতকাল সোমবার বলেছেন, ওনি কঠোর হস্তে এগুলোকে দমনের চেষ্টা করছেন। আমি মনে করি, এ বদলিগুলো তারই একটি অংশ হবে।

অনিয়মের বিষয়ে জনতে চাইলে তিনি বলেন, অনিয়মের চিত্রগুলো কি, আমি বিভিন্ন সময়ে ওপেন কোর্টে প্রধান বিচারপতিকে অভ্যর্থনা দেয়া হয় তখনও বলেছি। দুজন বিচারপতির অভ্যর্থনা অনুষ্ঠানে আমি বিস্তারিত বলেছি, সেগুলো আপনারা শুনেছেন। সেগুলো বার বার পুনরাবৃত্তি করতে চাই না।

এদিকে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট এএম আমিন উদ্দিন বলেন, দুর্নীতি অনিয়মের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে কারও বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার উদ্যোগকে সাধুবাদ জানাই। এটি একটি ভালো উদ্যোগ। ভিডিওclick here

Comment As:

Comment (0)