No icon

আবারও অপপ্রচারে সরকারি ভুয়া নিউজ সাইট

অ্যানালাইসিস বিডি ডেস্ক

দীর্ঘ ২ বছর ১ মাস ১৭ দিন পর কারামুক্ত হয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া। সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীর কারামুক্তি ও করোনাভাইরাসকে কেন্দ্র করে আবারো নতুন করে সক্রিয় হয়ে উঠেছে সরকারি সেই ভুয়া সাইট গুলো। সরকারের বিভিন্ন এজেন্সি মূল গণমাধ্যমগুলোর নামে ফেইক নিউজ সাইট তৈরি করে বিরোধী পক্ষের নামে বিভিন্নভাবে অপপ্রচার করছে।

অ্যানালাইসিস বিডির অনুসন্ধ্যানে দেখা গেছে এ পর্যন্ত পাঁচটি গুরুত্বপূর্ণ গণমাধ্যমের নামে ফেইক নিউজসাইট তৈরি করছে সরকার। সেগুলো হলো- আল-জাজিরা, প্রথম আলো, বিবিসি বাংলা ও বাংলা ট্রিবিউন, বিডি নিউজ টোয়েন্টিফোর। গণমাধ্যমগুলোর মূল ইউআরএলের সঙ্গে বাড়তি একটি দুটি অক্ষর যুক্ত করে এসব ফেইক সাইট তৈরি করা হয়েছে। মূল সাইটের ডিজাইনের হুবহু নকল করেই ফেইক সাইটগুলো তৈরি করা হচ্ছে।

আল-জাজিরা নামে তৈরি ফেইক সাইটটিতে ‘মেকআপের কারণে মুক্তি নিতে তিন ঘণ্টা দেরি বেগম জিয়ার!’ শিরোনামে ভুয়া নিউজ করা হয়েছে। সেখানে খালেদার জিয়ার মেকআপম্যান ও গৃহকর্মী ফাতেমাকে জড়িয়ে ভিত্তিহীন তথ্য উপস্থাপন করে খালেদার জিয়ার নামে বিভিন্ন অপপ্রচার ও বিভ্রান্তি ছড়ানোর চেষ্টা করা হয়েছে। কিন্তু বাস্তবে আল-জাজিরার কোন বাংলা ওয়েব সাইট নেই।

এছাড়া বিডিএস নিউজ টোয়েন্টিফোর নামে একটি সাইটে ‘খালেদা জিয়া মুক্ত, এখন দেশে করোনা থাকবেনা: মির্জা ফখরুল’এই শিরোনামে মির্জা ফখরুল ইসলামের উদ্ধৃতি দিয়ে ভিত্তিহীন অপপ্রচার চালায়। সেখানে ফখরুলের নামে বিভ্রান্তি ছড়ানোর চেষ্টা করে। এছাড়া বিভিন্ন ইস্যুতে বিরোধী দলের বিরুদ্ধে অপপ্রচার ও ভিত্তিহীন বানোয়াট তথ্য দিয়ে অপপ্রচার চালিয়ে আসছে সরকারের তৈরী এই ভুয়া নিউজ সাইট গুলো।

অনলাইনে সরকারের তরফ থেকে এমন অপপ্রচার চালানোর অভ্যাস অনেক আগে থেকেই। ২০১৮ সালের কারচুপির  নির্বাচনের সময় প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচ টি ইমামের এক বক্তব্য থেকেই। সে সময় এক বক্তব্যে তিনি আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদেরকে ‘নামে-বেনামে’ ফেইসবুক আইডি খোলার পরামর্শ দিয়েছিলেন। তারই অংশ হিসেবে নামে বেনামে ওয়েবসাইট তৈরি করে বিরোধী দলের বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে।

সে সময় বিবিসি ও প্রথম আলো তাদের মূল ওয়েবসাইটে ফেইক সাইটগুলো সম্পর্কে পাঠকদেরকে সতর্ক করে সংবাদ প্রকাশ করে। এরপর সে সাইট গুলো বন্ধ রাখলেও নতুন করে আল-জাজিরা বাংলা নামে ওয়েব সাইট খুলে আবারো সক্রিয় হয়ে উঠছে তারা। দেখা গেছে তিনটি ফেইক ওয়েবসাইটের মধ্যে প্রথম আলো আর বাংলা ট্রিবিউনের ফেইক সাইট দুটি একই সার্ভারে হোস্ট করা। অর্থাৎ সাইটগুলো যে একই স্থান থেকে পরিচালনা করা হচ্ছে সেটা অনেকটাই স্পষ্ট।

বিশ্লেষকরা বলছেন, সরকার গুজবের বিরুদ্ধে এত এত ব্যাবস্থা নিচ্ছেন, অথচ তারা নিজেরাই বিরোধীদের কুৎসা রটাতে গুজব ছড়াচ্ছে। ফেইক নিউজ সাইট ও পেজ চালাচ্ছে। শুধু বাংলাদেশের নয় আন্তর্জাতিক কয়েকটি নিউজ সাইটের হুবহু নকল করে ফেইক নিউজ সাইট তৈরি করে সেগুলোতে মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করা হচ্ছে। এসব নিউজে খালেদা জিয়া ও বিএনপিকে নিয়ে মিথ্যা সংবাদ পরিবেশন করে যাচ্ছে।

আরো পড়ুন: অপপ্রচারে এবার সরকারি ফেইক নিউজ সাইট!

আরো পড়ুন:  সরকার পক্ষের ১৫ ভুয়া পেজ ও অ্যাকাউন্ট বন্ধ করল ফেসবুক

আরো পড়ুন: এবার সরকার পরিচালিত ১৫ ভুয়া অ্যাকাউন্ট বন্ধ করল টুইটার

Comment As:

Comment (0)