No icon

গরুর মাংস বহনের অভিযোগে ভারতে যুবককে নির্মম নির্যাতন (ভিডিও)

গরুর মাংস বহন করার অভিযোগে লুকমান (২৫) নামে এক যুবককে ভারতের হরিয়ানার গুরগাঁওয়ে বেদম প্রহার করা হয়েছে। অভিযুক্তরা নির্দয়ভাবে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়েছে তাকে। লাথি মেরেছে। ঘুষি মেরেছে। প্রহারের এই দৃশ্য ভিডিওতে কেউ ধারণ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছেড়ে দিয়েছেন। ফলে তা ভাইরাল হয়েছে। প্রকাশ্য দিনের বেলা এমন ঘটনা ঘটলেও পুলিশ কোনো ব্যবস্থা না নেয়ায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তীব্র সমালোচনা উঠেছে। এ খবর দিয়েছে অনলাইন এনডিটিভি।

এতে বলা হয়েছে, হরিয়ানার এই শহরে আইন শৃংখলা পরিস্থিতির কতটা অবনতি হয়েছে তা ফুটে উঠেছে এ ঘটনার মধ্য দিয়ে। রোববার পুলিশ বলেছে, তারা এ ঘটনায় ৫ থেকে ৬ জনকে শনাক্ত করতে পেরেছে। ভিডিওতে যাদেরকে প্রহার করতে দেখা গেছে তাদেরকে গ্রেপ্তার করতে অতিরিক্ত ক্রাইম টিক মোতায়েন করেছেন গুরগাঁওয়ের কমিশনার কে. কে. রাও। এ ঘটনা ঘটেছে শুক্রবার সকালে। এদিন একটি পিকআপকে পিছু ধাওয়া করে ৮ কিলোমিটার দূরে গিয়ে তা থামাতে সক্ষম হয় গো-রক্ষক একটি গ্রুপ। ওই পিকআপের চালক ছিলেন লুকমান। ওই গ্রুপটি তাকে থামিয়ে গাড়ি থেকে টেনেহিঁচড়ে নামায়। এরপর নির্মম প্রহার করতে থাকে। এমনকি হাতুড়ি দিয়ে তাকে প্রহার করে। এ সময় তিনি রক্তাক্ত হয়ে পড়ে থাকেন রাস্তায়। হামলাকারীরাই তাকে পাঁজাকোলা করে পিকআপের ভিতর উঠিয়ে দেয়। এরপর পিকআপটি ফিরিয়ে নেয় গুরগাঁওয়ের বাদশাহপুর গ্রামে। সেখানে তার ওপর আবার নির্যাতন শুরু হয়। ভিডিওতে দেখা যায়, এরপরপুলিশ হস্তক্ষেপ করে এবং তাদেরকে থামায়। হামলাকারীরা নির্বিঘেœ এ সময় সেখান থেকে চলে যায়। ওই পিকআপের মালিক বলেছেন, তার পিকআপে ছিল মহিষের মাংস। তিনি ৫০ বছর ধরে এর ব্যবসা করে আসছেন।
হামলাকারীদের একজন প্রদীপ যাদব। তাকে শনিবার গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গুরগাঁওয়ের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার পৃতপাল সিং বলেছেন, হামলায় জড়িত অন্য সবাইকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। ভারতে গরুকে পবিত্র হিসেবে বিবেচনা করেন হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা। তাই ভারতের বেশির ভাগ স্থানে গরু জবাই করা বেআইনি। এ জন্য গরু জবাই বন্ধ করতে বেশ কিছু নজরদারিকারি গ্রুপ জোরপূর্বক আইন নিজেদের হাতে তুলে নিয়েছে। মাঝে মাঝেই তা সহিংস হয়ে ওঠে। এর আগে আখলাক নামে এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে হত্যা করা হয় তার বাড়িতে। তার ছেলেকে মারাত্মক আহতকরা হয়। দীর্ঘ চিকিৎসার পর তার ছেলে কিছুটা সুস্থ হয়েছেন। তিন বছরের বেশি এমন হামলা বৃদ্ধি পাওয়ার প্রেক্ষিতে ২০১৭ সালে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এ নিয়ে কথা বলেন। তিনি বলেন, গরুর প্রতি ভক্তির জন্য মানুষ হত্যা গ্রহণযোগ্য নয়।

 

Comment As:

Comment (0)